২-৩ মিনিটের ভিতরেই বীর্যপাত হয়ে যায় আপনার ? জেনে নিন সমাধান কি?

২ থেকে ৩ মিনিটের ভিতরে যদি আপনার বীর্যপাত হয়ে যায় এবং যদি বীর্যপাতের সময় বাড়াতে চান তাহলে আপনাকে স্টপ এবং প্লে.. পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

এবং তার সাথে যৌন শক্তি বৃদ্ধিকারক খাবার খেতে হবে যৌন শক্তি হ্রাস কৃত খাবার পরিহার করতে হবে। ধূমপান ও নেশা জাতীয় সরঞ্জাম ব্যবহার পরিহার করা। পেয়াজ, রসুন, মধু তে যৌন শক্তি বৃদ্ধি তে সহায়ক। মিলনের আগে স্ত্রীকে পূর্ণভাবে উত্তেজিত করে নিবেন।
এবার আসুন স্টপ এবং প্লে.. পদ্ধতি জেনে নেওয়া যাক।স্টপ এবং প্লে.. পদ্ধতি হচ্ছে যৌন মিলন শুরু করার পর থেকে কিছু ক্ষণ মিলন করার পর থেমে যাওয়া। মানে আপনার যদি ২ মিনিট মিলনে স্থায়িত হতে পারেন। ২ মিনিট পূর্ণ হলেই আপনার বীর্যপাত হয়ে যায়। আর যাদের যৌন মিলনে তৃপ্তি মিটে না তারা এই টা পড়েন

এই অবস্থায় আপনার করণীয় হচ্ছে বীর্যপাতের ভাব যখন আসবে তখন আপনি সহবাস বন্ধ করে দিবেন। যখন বীর্যপাতের ভাবটা কেটে যাবে তখন আবার সহবাস শুরু করবেন। আবার যখন বীর্যপাতের ভাব আসবে তখন আপনি আবার সহবাস করা বন্ধ করে দিবেন।

আপনি এভাবে যতক্ষণ ইচ্ছে সহবাস করে যেতে পারবেন। মধ্যে বিরতীর সময় আপনি আপনার স্ত্রীকে আলিঙ্গন করতে থাকবেন। তাতে আপনার কাম ভাব শীথল হবে না। এবং তারও তৃপ্তি হয়ে যাবে।

মিলনের সময় পুরুষের অধিক সময় নেওয়া পুরুষত্বের মুল যোগ্যতা হিসাবে গন্য হয়। যেকোন পুরুষ বয়সেরর সাথে সাথে মিলনের নানাবিধ উপায় শিখে থাকে। এখানে বলে রাখতে চাই – ২৫ বছরের কম বয়সী পুরুষ সাধারনত বেশি সময় নিয়ে মিলন করতে পারেনা। তবে তারা খুব অল্প সময় ব্যাভধানে পুনরায় উত্তেজিত/উত্তপ্ত হতে পারে। ২৫ এর পর বয়স যত বাড়বে মিলনে পুরুষ তত বেশি সময় নেয়। কিন্তু বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে পুনরায় জাগ্রত (ইরিকশান) হওয়ার ব্যাভধানও বাড়তে থাকে।তাছাড়া এক নারী কিংবা একপুরুষের সাথে বার বার মিলন করলে যৌন মিলনে বেশি সময় দেয়া যায় এবং মিলনে বেশি তৃপ্তি পাওয়া যায়। কারন স্বরুপ: নিয়মিত মিলনে একে অপরের শরীর এবং ভাললাগা/মন্দলাগা, পছন্দসই আসনভঙ্গি, সুখ দেয়া নেয়ার পদ্ধতি ইত্যাদি সম্পর্কে ভালভাবে অবহিত থাকে।

[উল্লেখ্যঃ যারা বলেন “এক তরকারী দিয়ে প্রতিদিন খেতে ভাল লাগেনা – তাই পর নারী ভোগের লালসা” – তাদেরকে অনুরোধ করছিঃ দয়াকরে মিথ্যাচার করবেন না। এমন যুক্তি ভিত্তিহীন। পরকীয়া আমাদের সমাজ ব্যবস্থাকে ধ্বংস করছে। মাত্র কয়েক মিনিটের কাম যাতনা নিবারনের জন্য আজীবনের সম্পর্কে অবিশ্বাসের কালো দাগ লাগাবেন কেন? অবিবাহীত ভাই ও বোনেরা, আপানাদের কি অতটা বড় বুকের পাটা আছে – যদি বিয়ের পরে আপনি জানেন যে আপনার স্ত্রী ‘সতী’ নয় তখন তার সাথে বাকি জীবন কাটাবেন? তাহলে কেন শুধু শুধু বিবাহ-পুর্ব মিলনের জন্য এত ব্যকুলতা? যে ধরনের নারীকে আপনি গ্রহন করতে পারবেন না – অথচ সেই আপনি অন্য পুরুষের ভবিষ্যৎ বধুর সতীত্ব লুটবেন?
দুঃখিত যদি কারো ব্যক্তি সত্বায় আঘাত করে থাকি।] মুল আলোচনায় আসি। বলছিলাম যৌন মিলনে অধিক সময় দেয়ার পদ্ধতি সমুহ নিয়ে…
পদ্ধতি ১:- চেপে/টিপে (স্কুইজ) ধরা:

এই পদ্ধতিটি আবিষ্কার করেছেন মাষ্টার এবং জনসন নামের দুই ব্যাক্তি। চেপে ধরা পদ্ধতি আসলে নাম থেকেই অনুমান করা যায় কিভাবে করতে হয়। যখন কোন পুরুষ মনে করেন তার বীর্য প্রায় স্থলনের পথে, তখন সে অথবা তার সঙ্গী লিঙ্গের ঠিক গোড়ার দিকে অন্ডকোষের কাছাকাছি লিঙ্গের নিচের দিকে যে রাস্তা দিয়ে মুত্র/বীর্য বহিঃর্গামী হয় সে শিরা/মুত্রনালী কয়েক সেকেন্ডর জন্য চেপে ধরবেন। (লিঙ্গের পাশ থেকে দুই আঙ্গুল দিয়ে ক্লিপের মত আটকে ধরতে হবে।)। চাপ ছেড়ে দেবার পর ৩০ থেকে ৪৫ সেকেন্ডের মত সময় বিরতী নিন। এই সময় লিঙ্গ সঞ্চালন বা কোন প্রকার যৌন কর্যক্রম করা থেকে বিরত থাকুন।